September 28, 2022

দৈনিক ভোরের বার্তা

সঠিক পথে সত্যের সন্ধ্যানে

খালিয়ায় হামিদুল শাহ্আলম মিয়াকেই পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়

1 min read
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি,

ছবি-দৈনিক ভোরের বার্তা

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার খালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি মন্ডলির সদস্য এবং সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপির ভাগিনা সাবেক সফল চেয়ারম্যান মো. হামিদুল শাহআলম মিয়া।

 

সৎ, যোগ্য, শিক্ষিত সাবেক সফল এই চেয়ারম্যান এবার ঘোড়া প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পুনরায় নির্বাচিত হতে দিন-রাত ছুটে চলেছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। খালিয়া ইউনিয়নে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে পুনরায় চেয়ারম্যান হতে চান সাবেক সফল এই চেয়ারম্যান।

 

ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে উক্ত ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ভালোবাসা ও আশীর্বাদ, সমর্থন এবং সহযোগিতা  কামনা করেছেন।

 

নাম প্রকাশে অনচ্ছুক সনাতন ধর্মালম্বী এক ভোটার বলেন, শাহআলম চেয়ারম্যান খুবই সৎ একজন ভালো মনের মানুষ। এলাকার অনেক উন্নয়ন করেছেন। তিনি হিন্দু-মুসলিম সকলের সাথেই ভালো ব্যবহার করেন। সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে সে আবারও বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে।

 

শাহআলমের জনপ্রিয়তায়  ঈর্শান্নিত হয়ে তার বিরোধী  প্রতিদ্বন্দ্বী তাকে হত্যার উদ্দেশ্য হামলা চালায়। তিনি প্রাণে বেঁচে যান। তাই দোষীদের শাস্তি এবং একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তিনি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন সাধারণ মানুষের সেবায়। পেয়েছেন জনগণের ভালোবাসা, হয়েছেন আস্থার প্রতীক।  তাই আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে উন্নয়নের স্বার্থে তাকে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান এ এলাকার সর্বস্তরের জনগণ।

 

করোনা কালীন সময়ে নিজের টাকায় গরীব-দুঃখী ও অসহায় মানুষকে সাহায্য করেছেন। মসজিদ-মাদরাসা, এতিমখানা ও মন্দিরে এখনো বিভিন্নভাবে সাহায্য-সহযোগিতা করে যাচ্ছেন তিনি।

 

স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, মো. হামিদুল শাহআলম একজন সৎ, যোগ্য, আদর্শবান ও শিক্ষিত এবং পরোপকারী ব্যক্তি। তার মাঝে কোনো অহংকার কিংবা লোভ নেই। তিনি সবসময় এলাকার সর্বসাধারণ মানুষের পাশে থেকে সেবা করে যাচ্ছেন। তাছাড়াও তিনি এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমুখী কাজ থেকে শুরু করে অসহায় মানুষের পাশে বিপদে-আপদে সবসময় ছুটে যান।

 

মো. হামিদুল শাহআলম মিয়া বলেন, খালিয়া ইউনিয়নের জনগণ যেন আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে এজন্য তাদের কাছে আমি ভোট প্রার্থনা করছি। আপনাদের দোয়ায় ভোটে জয়লাভ করলে এলাকার সার্বিক উন্নয়নে আবারও আত্মনিয়োগ করবো।

 

ইতোপূর্বে আপনাদের দোয়ায় আমি মাদারীপুর জেলার “শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান” নির্বাচিত হয়েছি। এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আপনাদের কাছে আমি আবারো ভোট প্রার্থনা করছি।

 

তিনি বলেন, সচেতন নাগরিকগণ যদি আমাকে পুনরায় নির্বাচিত করেন, তাহলে এলাকার জন্ম-মৃত্যু, অন্ধ, ভিক্ষুক, দু:স্থ ও অসহায় বিধবা, এতিম, গরীব প্রতিবন্ধী প্রভৃতি ব্যক্তিগণের তালিকা প্রনয়ণের ব্যবস্থা করবো।

 

ইউনিয়নের রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কালভার্ট ইত্যাদি উন্নয়নের জন্য ওয়ার্ড সভার মাধ্যমে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিকল্পনা প্রনয়ণ চলমান প্রকল্পের অগ্রগতি ও আর্থিক বিষয়াদি পর্যালোচনার দায়িত্ব পালন ও সংরক্ষনের প্রযোজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

তিনি আরও বলেন, সনাতন ধর্মীয় জনগণ সহ দলমত নির্বিশেষে আমাকে যদি জনগণ ভোট দিয়ে পুনরায় ‘চেয়ারম্যান’ পদে নির্বাচিত করেন তাহলে প্রথমে এই ইউনিয়নের সকল রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট ও সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ  করবো। এছাড়া বাল্যবিবাহ রোধ, বয়স্ক ভাতা, বিধভা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, সরকারি ত্রান-সাহায্য, নারীদের স্বাস্থ্য সেবার প্রতি গুরুত্ব দেওয়াসহ জনগণের মাঝে সুষম বন্টন করার মাধ্যমে এই ইউনিয়নকে আধুনিক রোল মডেল ইউনিয়ন হিসেবে রূপান্তর করবো, ইনশা আল্লাহ।

 

উল্লেখ্য, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার উক্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আগামী ১৫ জুন রোজ বুধবার ২০২২ খ্রিস্টাব্দে অনুষ্ঠিত হবে।

মো. সাখাওয়াত হোসন>

দৈনিক ভোরের বার্তা

Leave a Reply

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial